بسم الله الرحمن الرحيم

জামিয়া ইসলামিয়া রওজাতুল উলুম বাউনিয়াবাদ
  • প্রশ্ন: উন্নত জীবন যাপনের আশায় দারুল হরব/মুসলিমদের সাথে যুদ্ধে লিপ্ত এমন কোন রাষ্ট্র/অঞ্চলে মুসলিমদের জন্য বসবাস করার বিধান কি?
  • প্রশ্ন: যুদ্ধের ময়দানে কাফেরদের ঘর বাড়ি ও তাদের উপাসনালয় ধ্বংস করা যাবে কী?
  • প্রশ্ন: শাপলা চত্তরে যারা ইন্তেকাল করেছেন তাদেরকে শহীদ বলা যাবে কী?
  • প্রশ্ন: জিহাদ কখন ফরযে আইন ? কখন ফরযে কিফায়া ?
  • প্রশ্ন: জিহাদের সহিহ সংজ্ঞা কি? এবং তাবলীগে যাওয়া আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ বলা কতটুকু সহিহ?
  • প্রশ্ন: কবর খনন করে টাকা নেয়া জায়েয আছে কি না?
  • প্রশ্ন: খাওয়া যায় না এমন প্রাণী শিকার করা জায়েয আছে কী ?
  • প্রশ্ন: বর্তমানে স্কুল-কলেজে চারুকলা পরীক্ষায় বিভিন্ন মানুষ অথবা প্রাণীর ছবি আঁকতে বলা হয়, এমতাবস্থায় উক্ত ছবি আঁকা জায়েয হবে কি না?
  • প্রশ্ন: মুক্তিযোদ্ধা ভাতা এটা একটা সুবিধা, সুতরাং বাংলাদেশের কোন যোদ্ধা যদি মারা যায়, তাহলে কি তা ওয়ারিস সুত্রে তার ছেলে বা নাতি এ সুবিধা ভোগ করতে পারবে?
  • প্রশ্ন: কাফের বাদশাহর পক্ষ থেকে কাযার জিম্মাদারী গ্রহণ করা বৈধ হবে কি না?
  • প্রশ্ন: খালেদ আর বকর দুই ভাই আর যায়েদ হল তাদের মা শরীক ভাই, এখন তাদের মায়ের ১০০ শতাংশ জমি আছে। এ জমি থেকে কি যায়েদ কোন জমি পাবে? পেলে কতটুকু পাবে? উল্লেখ্য কোন বোন এবং অন্য কেউ নেই।
  • প্রশ্ন: হিজড়া সন্তান মিরাস পাবে কি না?
  • প্রশ্ন: বদলী হজকারীকে যদি প্রেরক সুনির্দিষ্টভাবে হজে তামাত্তু করার জন্য পাঠান কিন্তু তিনি হজ্জে ইফরাদ করেন, তাহলে তার হজ আদায় হবে কি না?
  • প্রশ্ন: কোন ব্যক্তির নিকট হজ ফরয হওয়া পরিমাণ সম্পদ রয়েছে কিন্তু তার চাইতে দ্বিগুণ ঋণ রয়েছে, তাহলে তার উপর হজ ফরজ হবে কি না?
  • প্রশ্ন: মৃত ব্যক্তির নামে ওমরা পালন করলে ওমরা কার পক্ষ হতে আদায় হবে?
  • প্রশ্ন: পেনশনের টাকা দিয়ে হজ আদায় করা যাবে কি না?
  • প্রশ্ন: কোন বৃদ্ধলোক (যিনি চলাফরো করতে কষ্ট হয় ) যদি ধনী হয় তাহলে কি তার উপর হজ ফরয হবে?
  • প্রশ্ন: শরয়ী দন্ডবিধি কে বাস্তবায়ন করবে? বিচারক না মুফতি?
  • প্রশ্ন: অনেক মুসল্লী ভাইদেরকে দেখা যায়, জুতা পায়ে রেখে জানাযার নামাজ আদায় করে। জানার বিষয় হলো; এই ভাবে নামাজ আদায় করার হুকুম কি?
  • প্রশ্ন: রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ভাষা ছিল আরবী, তাই তিনি আরবীতে খুতবা দিতেন,জানার বিষয় হলো, আমাদের মাতৃভাষায় খুতবা দেওয়া জায়েয হবে কি না? আর যদি কেউ দিয়ে ফেলে তাহলে জুমার নামায সহিহ হবে কি না?
  • প্রশ্ন: এক ব্যক্তি জানাযার নামাযে আট তাকবীর বলে শেষ করল, এখন জানার বিষয় হলো; যদি ইমাম সাহেব চার তাকবীরের বেশি তাকবীর বলে তখন মুক্তাদিরা কী করবে? এবং উক্ত নামাযের হুকুম কী?
  • প্রশ্ন: আমরা জানি জুমা বা ঈদের নামাযের খুতবা শুনা ওয়াজিব, কথা বলা হারাম। জানার বিষয় হলো ইমাম সাহেব যদি খুতবাতে কোন ভুল করে ফেলেন, তাহলে উপস্থিত মুসল্লীরা লোকমা দিতে পারবে কি না?
  • প্রশ্ন: অধিকাংশ মসজিদে জুমআর খুতবার পূর্বে বয়ান হয়ে থাকে, জানার বিষয় হলো যে, এই বয়ান জায়েয আছে কি না? উক্ত বয়ান চলাকালীন সময়ে নামাজ পড়া যাবে কি না?
  • প্রশ্ন: কেউ যদি বলে বর্তমানে কোন যুদ্ধ – জিহাদ নেই! অথচ আমরা জানি জিহাদ কিয়ামত পর্যন্ত চলতে থাকবে, এমন ব্যক্তির কি ঈমান ভেঙ্গে যাবে?
  • প্রশ্ন: আমার জানার বিষয় হলো, যে ব্যক্তি নামাজ পড়ে, কোরআন পড়ে, হজ্জ করে আবার হারাম কাজের বৈধতা দেয়, তার ব্যাপারে শরীয়ত কি বলে?
  • প্রশ্ন: শরয়ী দৃষ্টিতে রাশির বিধান কি?
  • ঈমান আকাইদ
  • প্রশ্ন: উন্নত জীবন যাপনের আশায় দারুল হরব/মুসলিমদের সাথে যুদ্ধে লিপ্ত এমন কোন রাষ্ট্র/অঞ্চলে মুসলিমদের জন্য বসবাস করার বিধান কি?
  • An Noor TV

    প্রশ্ন: অনেক মুসল্লী ভাইদেরকে দেখা যায়, জুতা পায়ে রেখে জানাযার নামাজ আদায় করে। জানার বিষয় হলো; এই ভাবে নামাজ আদায় করার হুকুম কি?

    উত্তর: শরীয়তের মূলনীতি হলো, নামাজী ব্যক্তির নামাজের স্থান পাক হওয়া আবশ্যক। সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত সূরতে মুসল্লী যদি জুতা পায়ে রেখে নামাজ পড়ে, তাহলে অবশ্যই জুতার তলাসহ জমীনের ঐ অংশও পাক হতে হবে, যাতে জুতা রাখা হয়েছে। আর যদি জুতা খুলে জুতার উপর পা রেখে নামাজ পড়ে তাহলে শুধু জুতার ঐ অংশ পাক হতে হবে যা […]

    An Noor TV

    প্রশ্ন: রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ভাষা ছিল আরবী, তাই তিনি আরবীতে খুতবা দিতেন,জানার বিষয় হলো, আমাদের মাতৃভাষায় খুতবা দেওয়া জায়েয হবে কি না? আর যদি কেউ দিয়ে ফেলে তাহলে জুমার নামায সহিহ হবে কি না?

    উত্তর: শরীয়তের মূলনীতি অনুযায়ী জুমা ও ঈদের খুতবা আরবীতে হওয়াটাই জরুরী, যা উম্মাহর ধারাবাহিক আমল দ্বারা প্রমাণিত। সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত সূরতে আরবী ভাষা জানা সত্তে¡ও মাতৃভাষায় খুতবা পড়া মাকরূহে তাহরীমী হবে। তবে হ্যাঁ যদি কেউ পড়ে ফেলে তাহলে তার জুমার শর্ত পাওয়া যাওয়ার কারণে কারাহাতের সাথে জুমা সহিহ হয়ে যাবে। তবে বিশুদ্ধ ও ধারাবাহিকভাবে প্রমাণিত […]

    An Noor TV

    প্রশ্ন: এক ব্যক্তি জানাযার নামাযে আট তাকবীর বলে শেষ করল, এখন জানার বিষয় হলো; যদি ইমাম সাহেব চার তাকবীরের বেশি তাকবীর বলে তখন মুক্তাদিরা কী করবে? এবং উক্ত নামাযের হুকুম কী?

    উত্তর: শরীয়তের মূলনীতি হলো, যদি ইমাম সাহেব নামাযের ফরজ ও ওয়াজিব বিধানাবলী আদায় করার পর অতিরিক্ত কোন কাজে লিপ্ত হয়ে যায়, তাহলে মুক্তাদিরা ইমামের অনুসরন না করে ইমামের সালামের অপেক্ষা করবে। সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত সূরতে যেহেতু জানাযার নামাযের রুকন হলো চার তাকবীর বলা, তাই ইমাম চার তাকবীরের বেশি বলে অতিরিক্ত কাজই করল, অতএব বিশুদ্ধ মতানুযায়ী […]

    An Noor TV

    প্রশ্ন: আমরা জানি জুমা বা ঈদের নামাযের খুতবা শুনা ওয়াজিব, কথা বলা হারাম। জানার বিষয় হলো ইমাম সাহেব যদি খুতবাতে কোন ভুল করে ফেলেন, তাহলে উপস্থিত মুসল্লীরা লোকমা দিতে পারবে কি না?

    উত্তর: শরয়ী নীতিমালা অনুযায়ী খুতবা চলাকালীন সময়ে কথা বলা বা অন্য যে কোন কাজ করা নিষিদ্ধ। সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত সূরতে খতীব সাহেব কোন ভুল করলেও তাতে লোকমা দেওয়া বা সংশোধন করে দেওয়া দরকার নেই। কেননা খুতবার মাঝে হওয়া তথ্য,তত্ত বা ভাষাগত ভুলের কারণে নামাজ ভঙ্গ হবে না। তবে পরবর্তীতে আদাবের সাথে ইমাম/খতীব সাহেবেকে এব্যাপারে অবগত […]

    Madrasha
    An Noor TV

    প্রশ্ন: অধিকাংশ মসজিদে জুমআর খুতবার পূর্বে বয়ান হয়ে থাকে, জানার বিষয় হলো যে, এই বয়ান জায়েয আছে কি না? উক্ত বয়ান চলাকালীন সময়ে নামাজ পড়া যাবে কি না?

    উত্তর: হাদীস শরীফে এসেছে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন “দ্বীন কল্যাণ কামীতার নাম” অর্থাৎ একে অপরের কল্যাণ কামনা করা এবং মানুষকে সৎ কাজের আদেশ ও অসৎ কাজ থেকে বারণ করা। সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত সূরতে যেহেতু জুমার দিন নানান পেশার মানুষ একত্রিত হয়, তাছাড়া সবাইকে একসাথে করা প্রায় অসম্ভব। তাই মানুষের দ্বীনি প্রয়োজনের খাতিরে খতীব সাহেব […]

    An Noor TV

    প্রশ্ন: কেউ যদি বলে বর্তমানে কোন যুদ্ধ – জিহাদ নেই! অথচ আমরা জানি জিহাদ কিয়ামত পর্যন্ত চলতে থাকবে, এমন ব্যক্তির কি ঈমান ভেঙ্গে যাবে?

    উত্তর: জিহাদ ইসলামের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি ফরজ বিধান, যা কেয়ামত পর্যন্ত পৃথিবীর যে কোন স্থানে বিদ্যমান থাকবে। কুরআন সুন্নাহ থেকে এমনটাই বুঝা যায়। সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত ব্যক্তির উক্তিটি ব্যাখ্যা সাপেক্ষ। যদি তিনি পরিবেশ- পরিস্থিতি বিশ্লেষন করে জিহাদের ধারাবাহিকতা না থাকার কথা বুঝাতে চান তাহলে শরয়ী দৃষ্টিতে ঈমান শুন্য হবে না। তবে এ ধরণের কথা মানুষকে ধীরে […]

    প্রশ্ন: আমার জানার বিষয় হলো, যে ব্যক্তি নামাজ পড়ে, কোরআন পড়ে, হজ্জ করে আবার হারাম কাজের বৈধতা দেয়, তার ব্যাপারে শরীয়ত কি বলে?

    উত্তর: ইসলামী আকীদা বিশ্বাস অনুযায়ী অকাট্যভাবে প্রমাণিত কোন বিধান অস্বীকার বা ঠাট্টা – বিদ্রুপ করার দ্বারা ঈমান চলে যায়, তবে অমান্য করার দ্বারা ঈমান না গেলেও মারাত্মক গুনাহগার হয়। সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত ব্যক্তি যদি হারামকে হারাম মনে কওে কিন্তু কারণ বশত হারামের বৈধতা দেয়, তাহলে তাকে কাফের বলা যাবে না, তবে অবশ্যই ফাসেক বলা হবে, […]

    An Noor TV

    প্রশ্ন: শরয়ী দৃষ্টিতে রাশির বিধান কি?

    প্রশ্ন: শরয়ী দৃষ্টিতে রাশির বিধান কি? রাশিফলের উপর বিশ্বাস করা ঈমানের জন্য কতটুকু ক্ষতিকারক? এবং আমরা পত্রিকায় যে রাশিফল দেখি এর বিধান কি? এবং যারা ছাপায় তাদের বিধান কী? উত্তর: কুরআন হাদীসের বর্ণনা অনুযায়ী অদৃশ্য (গায়েব) ও ভবিষ্যতের খবর একমাত্র আল্লাহ তায়ালাই জানেন, এ ব্যাপাওে কাউকে জিজ্ঞাসা করা, বলা ও বিশ্বাস করা হারাম ও ঈমান […]

    Madrasha
    An Noor TV

    ঈমান আকাইদ

    প্রশ্ন: কিছু কিছু জায়গার মধ্যে অকল্যাণ/ অলক্ষণ রয়েছে এটা বিশ্বাস করা কি ঠিক? উত্তর: হাদীস শরীফে আছে কোন স্থান বা কালের মধ্যে অকল্যাণ নেই। সুতরাং প্রশ্নে বর্ণিত সুরতে কোন কোন স্থানের ব্যাপারে অকল্যাণ বা কুলক্ষী হওয়ার বিশ্বাস রাখা ঠিক না। এধরনের বিশ্বাসের সাথে ইসলামের কোন সম্পর্ক নেই। তালাক, আয়াত ০৩, সুনানে আবু দাউদ ২-৫৪৭, ফাতহুল […]