যেকোন ঘটনায় জঙ্গীবাদের গন্ধ খোঁজা কিছু কিছু সাংবাদিকের স্বভাবে পরিণত হয়েছে-সাইমুম সাদী

Shortlink:

‘তবে তার সাথে জংগি সংশ্লিষ্টতার কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি বলে জানা গেছে’ এই বাক্যটা লিখতে ভুলেননি সাংবাদিক ভাইয়া।

চট্টগ্রামে ব্লগার জামাল উদ্দিনকে কয়েকদিন যাবত কারা হুমকি দিচ্ছিল। ব্লগার ব্রাদার থানায় জানিয়েছিলেন এই হুমকির কথা এবং তার সন্দেহের তীর ছিল মুসলিম জংগিদের দিকে। পুলিশও এই ভয়ংকর জংগি বাহিনীকে ধরার জন্য তৎপর হয়।

কে জানে স্পট যেহেতু চট্টগ্রাম সেহেতু যদি সম্ভাব্য এই জংগিদেরকে হাটহাজারি বা পটিয়া মাদ্রাসার ছাত্র বলে উল্লেখ করা যায়, এমনকি তার বাপ দাদা কাউকেও যদি মাদ্রাসার ছাত্র ছিলেন এমন কিছু পাওয়া যায় ক্যামেরা ট্রায়াল করা যাবে।

কিন্তু ভাগ্য খারাপ সকলের। সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী, মাথায় বিরাট টাক বিশিষ্ট টকশো ব্যাক্তিত্ব সকলকে নিরাশার সাগরে ভাসিয়ে হুমকিদাতা যিনি বেরিয়ে এলেন গর্ত থেকে তিনি আর কেউ নন, তার নাম টিটুশীল জয়দেব। জয়দেব ব্লগার জামাল উদ্দিনকে হত্যার হুমকি দিচ্ছিলেন সম্পুর্ন ব্যাক্তিগত কারণে।

তেহাত্তর টিভি, ফোর টুয়েন্টি ডট কম, সাংবাদিক ও বুদ্ধিজীবীদের হতাশ করেছে টিটুশীল জয়দেব। ব্যাটা পুলিশ যখন ধরেছিল তখন নামটা মুসলমানি বললে কি এমন ক্ষতি হত! ঠিক একই কাজ করেছিল হাসান রূহানী নামক এক লোক মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে হত্যার হুমকি দিয়ে। পরে জানা গেল এর নাম হাসান রূহানী নয়, সুজন কুমার!

বীচিহীন বুদ্ধিজীবী, সাংবাদিক আর ফোর টুয়েন্টিদের বদদোয়া যদি কাজে লাগে তাহলে বলব টিটুশীল জয়দেবের নরকে যাওয়া ছাড়া আর কোন পথ নাই। কারণ সে এসব লোকজনের আশা ভংগ করেছে। তারা আশায় ছিলেন একটা মুসলিম জংগি ধরা পড়বে, কিন্তু জয়দেব এই আশায় গুড়েবালি দিয়েছে।

আর কে না জানে আশা ভংগ মহাপাপ! ধরলে বলে বাপরে বাপ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *