গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে হাতপাখায় ভোটদানকারীদের ইসলামী আন্দোলনের পক্ষ থেকে আন্তরিক মোবারকবাদ-গাজী আতাউর রহমান।

Shortlink:

বহুল আলোচিত গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন গতকাল হয়ে গেল। আওয়ামী লীগের আমলে যে আর নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না, তা আবারও প্রমান হলো।
এমন একটি প্রতিকূল নির্বাচনী পরিবেশেও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রর্থী ২৬৩৮১ ভোট পয়েছেন।
যা প্রদত্ব ভোটের ৪.২ পার্সেন্ট।
গাজীপুর সিটিতে এটাই ইসলামী আন্দোলনের প্রথম নির্বাচন। এর আগে ২০০৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুর সদরের ৩১ টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত গাজীপুর ২ আসনে ইসলামী আন্দোলন ৩০০০ এর মতো ভোট পেয়েছিল।
আমরা সবাই জানি গতকাল নিরেপেক্ষ নির্বাচন হলে ইসলামী আন্দোলন আরো অনেক বেশি ভোট পেত।
তারপরও ঘোষিত ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, গাজীপুর সিটিতে বিগত দশ বছরে ইসলামী আন্দোলনের ভোট বেড়েছে প্রায় ৫ গুণ। দশ বছর আগে সংসদ নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন গাজীপুর ও টঙ্গীর প্রতিটা ওয়ার্ডে গড়ে প্রায় ১০০ করে ভোট পেয়েছিল। আর গতকালের ঘোষিত ফলাফলে ইসলামী আন্দোলন প্রতিটি ওয়ার্ডে ভোট পেয়েছে প্রায় ৫০০ করে।
গত দশ বছরে ইসলামী আন্দোলনের যে অগ্রগতি হয়েছে বাংলাদেশের কোন রাজনৈতিক দলের তা হয়নি। এ জন্য আমরা মহান আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় করি। আমাদের বিশ্বাস, ইসলামী আনন্দোলনের অগ্রগতির এই ধারা যদি আগামী দশ বছর অব্যাহত থাকে তাহলে ইসমী আন্দোলনই হবে এদেশের প্রধান রাজনৈতিক শক্তি।
গাজীপুরের নির্বাচনে আমাদের ভায়েরা অনেক মেহনত করেছে। নির্বাচনে ভোট দিয়ে, অর্থ এবং শ্রম দিয়ে যারা বিভিন্নভাবে ইসলামী শক্তিকে সহযোগীতা করেছেন, আল্লাহ তাদের কবুল করুন।
ইসলামী আন্দোলনের পক্ষ থেকে গাজীপুরবাসীকে জানাই আন্তরিক মোবারকবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *